বাজেটে দলিতদের জন্য আলাদা বরাদ্দ দাবি

বাজেটে দলিতদের জন্য আলাদা বরাদ্দ দাবি
অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আসন্ন বাজেটে ৭০ লাখ দলিতের জন্য আলাদা বরাদ্দের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ দলিত নারী আন্দোলন। বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বাস্তবায়নকারী সংস্থা শারি এবং সহযোগী সংস্থা অক্সফামের আয়োজনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে দয়াগঞ্জ তেলেগু সিটি কলোনির অন্তরা বিশ্বাস বলেন, দলিত শ্রেণীকে নানাভাবে সমাজের একটি আলাদা জায়গায় রাখা হয়। কোনভাবেই তাদের মূলধারায় সম্পৃক্ত হতে দেয়া হচ্ছে না। সমাজপতিরা এই কাজটি করলেও সরকারীভাবে তাদের আলাদা কোন ব্যবস্থা দেয়া হয়না। আদিবাসীদের জন্য কোটা পদ্ধতি ও বাজেটে আলাদা বরাদ্দ রাখা হলেও দলিত সম্প্রদায় সেই প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত।
আসন্ন বাজেটকে সামনে রেখে কিছু দাবি জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে। দলিত শিশুরা শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত রয়েছে। এজন্য আগামী বাজেটে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দলিতদের জন্য বাজেটে কোটা বরাদ্দ, সামান্য শিক্ষিত দলিত নারী- পুরুষদের উপযুক্ত কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা, ঋষিদের জন্য এসএমই ঋণ চালু, দলিত সম্প্রদায়ের বর্তমান বসবাসরত এলাকাগুলোতে পরিপূর্ণ বহুতলবিশিষ্ট ভবন নির্মাণ করার জন্য দীর্ঘমেয়াদী কিস্তি ও বিসিক শিল্প নগরীতে ঋষি সম্প্রদায়ের জন্য আলাদা কর্ণার চালু করা, দলিত প্রতিটি কলোনিতে সরকারী স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র স্থাপন করা, চাকরি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি ক্ষেত্রে সংবিধানের অনুচ্ছেদ ২৯(৩) অনুযায়ী দলিতদের জন্য কোটা বরাদ্দ করে বাজেটে বরাদ্দ রাখার দাবি জানানো হয়। অন্যদিকে সকল সেফটি নেট প্রকল্পে দলিতদের জন্য আলাদা বাজেট বরাদ্দ এবং দলিত কমিশন গঠন করে তাদের জীবনমান উন্নয়নে গৃহীত প্রকল্প বাস্তবায়নের জোর দাবি জানানো হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন শারির উপ-সমম্বয়ক রঞ্জন বকসী নুপু, বাংলাদেশ দলিত নারী আন্দোলনের সদস্য সচিব বেবী রানী দাস, বাংলাদেশ দলিত ঋষি পঞ্চায়েত ফোরামের সাধারণ সম্পাদক রাজকুমার দাস, বাংলাদেশ ঐক্য পরিষদের সভাপতি শ্রীকৃষ্ণ লাল এবং শারির প্রকল্প কর্মকর্তা সঞ্চিতা তালুকদার।